তরমুজ কেটে ফ্রিজে রাখলে হয়ে যেতে পারে বিষ!

by Chhanda Basak

তরমুজের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : গ্রীষ্মকাল এলেই তরমুজ হয়ে ওঠে আমাদের প্রিয় ফলগুলোর মধ্যে একটি। এটি রসালো, মিষ্টি এবং সতেজ, যা আমাদের তাপ থেকে মুক্তি দেয় এবং আমাদের হাইড্রেটেড রাখে। তবে আপনি কি জানেন তরমুজ কেটে ফ্রিজে রাখলে কিছু অসুবিধা হতে পারে? তরমুজ ভিটামিন শি, এ, বি 6 এবং পটাসিয়ামের মতো অনেক প্রয়োজনীয় পুষ্টির সমৃদ্ধ উৎস। তরমুজ কেটে ফ্রিজে রাখলে এই পুষ্টিগুণ দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়।

পুষ্টি গুন কমে যাওয়া:

1. ভিটামিন শি: ভিটামিন শি একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ইমিউন সিস্টেমকে শক্তিশালী করে। এটি তাপ ও আলোর প্রতি সংবেদনশীল, তাই তরমুজ কেটে ফ্রিজে রাখলে ভিটামিন শি-এর পরিমাণ কমে যায়।

2. ভিটামিন এ: ভিটামিন এ চোখের স্বাস্থ্য এবং ইমিউন সিস্টেমের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এটি তাপ এবং আলোর প্রতিও সংবেদনশীল, তাই এটি ফ্রিজে রাখলে এর পরিমাণ কমে যায়।

3. ভিটামিন B6: ভিটামিন B6 প্রোটিন এবং কার্বোহাইড্রেটের বিপাক প্রক্রিয়ায় সাহায্য করে। এটি তাপ এবং আলোর প্রতিও সংবেদনশীল, তাই এটি ফ্রিজে রাখলে এর পরিমাণ কমে যায়।

4. পটাসিয়াম: পটাসিয়াম রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে এবং হার্টের স্বাস্থ্য বজায় রাখে। এটি তাপ এবং আলোর প্রতিও সংবেদনশীল, তাই এটি ফ্রিজে রাখলে এর পরিমাণ কমে যায়।

আরও পড়ুন: দাঁত সাদা পাওর টিপস: হলুদ দাঁত কীভাবে পরিষ্কার করবেন? জেনে নিন ৫টি ঘরোয়া উপায়

স্বাদ পরিবর্তন:

  • কম মিষ্টি: তরমুজের মিষ্টি এবং রসালো স্বাদ এর প্রাকৃতিক চিনি এবং জলের উপাদানের কারণে। যখন তরমুজ কেটে ফ্রিজে সংরক্ষণ করা হয়, তখন শর্করা ভেঙ্গে যায় এবং জল বাষ্পীভূত হয়, যার ফলে স্বাদে পরিবর্তন হয়।
  • শুকনো: রেফ্রিজারেটরে সংরক্ষণ করলে জল বাষ্পীভূত হয়ে যায়, ফলে তরমুজ শুষ্ক ও কম রসালো হয়ে যায়।

ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের ঝুঁকি:

তরমুজ একটি আর্দ্র ফল, যা ব্যাকটেরিয়ার জন্য একটি আদর্শ প্রজনন স্থল। তরমুজ কেটে ফ্রিজে সংরক্ষণ করা হলে ব্যাকটেরিয়া দ্রুত বৃদ্ধি পেতে পারে, খাদ্যজনিত অসুস্থতার ঝুঁকি বাড়ায়।

1. সালমোনেলা: সালমোনেলা একটি ব্যাকটেরিয়া যা ডায়রিয়া, বমি এবং পেটে ব্যথার জন্য দায়ী। এটি তরমুজের ছিদ্রে উপস্থিত থাকতে পারে এবং কাটার সময় ফলকে দূষিত করতে পারে।

2. ই. কোলি: E. coli হল একটি ব্যাকটেরিয়া যা ডায়রিয়া, পেটে ব্যথা এবং জ্বর সৃষ্টি করে। এটি তরমুজের ছিদ্রেও থাকতে পারে এবং কাটার সময় ফলকে দূষিত করতে পারে।

3. লিস্টেরিয়া: লিস্টেরিয়া হল একটি ব্যাকটেরিয়া যা গর্ভবতী মহিলা, নবজাতক শিশু এবং দুর্বল প্রতিরোধ ক্ষমতা সম্পন্ন ব্যক্তিদের জন্য বিপজ্জনক হতে পারে। এটি তরমুজের ছিদ্রে উপস্থিত থাকতে পারে এবং কাটার সময় ফলকে দূষিত করতে পারে।

আরও পড়ুন: সানস্ক্রিন লাগানোর কি নিয়ম আছে, গরমে কতটা এসপিএফ লাগাতে হবে, যেনে নিন বিস্তারিত

কীভাবে নিরাপদে তরমুজ সংরক্ষণ করবেন:

1. পুরো তরমুজ সংরক্ষণ করুন: পুরো তরমুজ ঘরের তাপমাত্রায় একটি বাতাস যুক্ত জায়গায় এক সপ্তাহ পর্যন্ত সংরক্ষণ করা যেতে পারে।

2. স্টোর কাট তরমুজ: কাটা তরমুজ একটি বায়ুরোধী পাত্রে 3-4 দিনের জন্য ফ্রিজে সংরক্ষণ করা যেতে পারে।

3. তরমুজের খোসা ধুয়ে নিন: তরমুজ কাটার আগে ব্যাকটেরিয়া দূর করার জন্য ছালটি ভালো করে ধুয়ে নিন।

4. পরিষ্কার ছুরি ব্যবহার করুন: তরমুজ কাটতে সর্বদা একটি পরিষ্কার ছুরি ব্যবহার করুন।

5. কাটা তরমুজ তাড়াতাড়ি খান: দ্রুত কাটা তরমুজ খান যাতে ব্যাকটেরিয়া বাড়তে সময় না পায়।

উপসংহার

যদিও তরমুজ একটি স্বাস্থ্যকর এবং তাজা ফল, এটি কেটে ফ্রিজে সংরক্ষণ করলে এর পুষ্টি উপাদান কমে যায়, স্বাদ পরিবর্তন হয় এবং ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়। তরমুজের সর্বাধিক উপকারিতা উপভোগ করার জন্য, এটি সঠিকভাবে সংরক্ষণ করা এবং দ্রুত খাওয়া গুরুত্বপূর্ণ।

NEWS24-BENGALI.COM

NEWS24-BENGALI.COM brings to provide the latest quality Bengali News(বাংলা খবর, Bangla News) on Crime, Politics, Sports, Business, Health, Tech, and more on Digital Platform.

Edtior's Picks

Latest Articles

Copyright © 2024 NEWS24-BENGALI.COM | All Rights Reserved.