৭০ বছরে পশ্চিমবঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে আট মুখ

by Chhanda Basak
৭০ বছরে পশ্চিমবঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে আট মুখ

West Bengal Assembly Election 2021: এটি বলা যায় না যে পশ্চিমবঙ্গে কোনও রাজনৈতিক অস্থিরতা নেই। শর্ত অনুকূল নয় দেখে এখানে চারবার রাষ্ট্রপতির শাসন আরোপ করা হয়েছে। তবুও বলা যায় যে বাংলায় রাজনৈতিক পরিস্থিতি যথেষ্ট স্থিতিশীল। আমরা যদি বাংলাকে তার প্রতিবেশী রাজ্যগুলির সাথে তুলনা করি তবে মনে হয় এখানে রাজনীতিতে স্থিতিশীলতা রয়েছে। এর একটি গুরুত্বপূর্ণ উদাহরণ হ’ল দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত মাত্র আটজন মানুষ বাংলায় মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণ করেছেন। অনেক মুখ্যমন্ত্রীকে বারবার সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, যিনি তাঁর দ্বিতীয় মেয়াদ শেষ করতে চলেছেন, তার উদাহরণ একই রকম।

একটা সময় ছিল যখন বাংলায় একটি সংবিধান সম্মত সংকট দেখা দিয়েছিল। রাজ্যের প্রথম মুখ্যমন্ত্রী ডাঃ বিধান চন্দ্র রায়ের মৃত্যুর পরে তৃতীয় সমাবেশের মেয়াদ ১৯৬৭ সাল পর্যন্ত অব্যাহত ছিল। ১৯৬২ থেকে ১৯৬৭ সাল পর্যন্ত পরিষদের পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত বিষয়গুলি প্রায় ঠিক ছিল। ১৯৬২ সালের নির্বাচনের পরে, একই সময়ের মধ্যে, প্রায় পাঁচ মাস মুখ্যমন্ত্রী পদে থাকা ডঃ রাই ১ জুলাই, ১৯৬২ সালে মারা যান। তাঁর মৃত্যুর পরে, তাঁর দল প্রফুল্ল চন্দ্র সেনকে মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত করেছিলেন এবং ১৯৬৭ সালে বিধানসভার মেয়াদ শেষ না হওয়া পর্যন্ত তিনি রাজ্য প্রশাসনের প্রধান ছিলেন। ১৯৬৭ সালের বিধানসভা নির্বাচনের পরে সমস্যা শুরু হয়েছিল। এবং রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার এই সময়টি ১৯৬৭ থেকে ১৯৭২ সাল পর্যন্ত পৌঁছেছিল। পাঁচ বছরের একই সময়কালে প্রয়াত অজয় কুমার মুখোপাধ্যায় এবং একবার প্রয়াত প্রফুল্ল চন্দ্র ঘোষকে মুখ্যমন্ত্রী করা হয়েছিল। এই সময়ে রাষ্ট্রপতির শাসনও তিনবার চাপানো হয়েছিল।

আরও পড়ুন : কোকেন-সহ নিউ আলিপুর থেকে গ্রেফতার BJP যুব নেত্রী Pamela Goswami

১৯৭২ সালে সপ্তম বিধানসভা নির্বাচনের মাধ্যমে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা এড়ানো যায়। তারপরে পরবর্তী পাঁচ বছর প্রয়াত সিদ্ধার্থ শঙ্কর রায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হন। তিনি ১৯৭৭ অবধি অব্যাহত ভাবে এই পদে ছিলেন। সিদ্ধার্থ শঙ্কর রায় এর পর এবার বাংলাই ৫১ দিন রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু করা হই। ১৯৭৭ সালে জ্যোতি বসু মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব নেওয়ার পরে, তিনি রেকর্ড ২৩ বছর ধরে তার বামফ্রন্টের সরকার পরিচালনা করে চলেছিলেন। তাঁর শারীরিক অবস্থা দেখে দল যখন তাকে বিশ্রামে পাঠায়, ২০০০ সালে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য বামফ্রন্ট সরকারের অধিনায়ক হন এবং তিনি টানা ১১ বছর সরকারকে নেতৃত্বও দিয়েছিলেন। ২০১১ সালে, বাংলার জনগণকে বামফ্রন্টকে পরাস্ত করে এবং ক্ষমতা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর হাতে দেন। তিনি তার শাসনের ১০ বছর পূর্ণ করতে চলেছেন।

যদি প্রতিবেশী রাজ্যগুলির সাথে যদি তুলনা করা হয়, তবে দেখা যাবে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার দিক থেকে বাংলা বেশ আলাদা। দেশ স্বাধীন হওয়ার পরে মুখ্যমন্ত্রীর পদে ২৩ জন মুখোমুখি দেখা গেছে অর্থাৎ ২৩ জন পৃথক ব্যক্তি, এখন পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রী অধিষ্ঠিত মোট আট মুখের তুলনায়। অন্য দুটি প্রতিবেশী রাজ্য – আসাম ও ওড়িশায়, ১৪-১৫ জন লোক মুখ্যমন্ত্রী পদে যোগ দিয়েছিল। সিকিমেও ছয়জন মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন। ঐ রাজ্যটি কেবল ১৯৭৪ সালেই অস্তিত্ব লাভ করেছিল। ঝাড়খণ্ডের ঘটনাটি অন্যরকম দেখাচ্ছে। ২০০০ সালে, বিহার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে নতুন রাজ্যে পরিণত হওয়া ঝাড়খণ্ডে ছয় জন মুখ্যমন্ত্রী পদে পৌঁছেছেন।


নাম ও মোট মেয়াদ :

  1. ডাঃ বিধান চন্দ্র রায় ১৪ বছর, ১৫৮ দিন
  2. প্রফুল্ল চন্দ্র সেন ০৪ বছর, ২৩৪ দিন
  3. অজয় ​​কুমার মুখোপাধ্যায় ০২ বছর ৬ দিন
  4. প্রফুল্ল চন্দ্র ঘোষ ০২ বছর, ০৯০ দিন
  5. সিদ্ধার্থ শঙ্কর রায় 0৫ বছর, 0৪১ দিন
  6. জ্যোতি বসু ২৩ বছর, ১৩৭ দিন
  7. বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য ১০ বছর, ১৮৮ দিন
  8. মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 0৯ বছর ….

 

NEWS24-BENGALI.COM

NEWS24-BENGALI.COM brings to provide the latest quality Bengali News(বাংলা খবর, Bangla News) on Crime, Politics, Sports, Business, Health, Tech, and more on Digital Platform.

Edtior's Picks

Latest Articles

Copyright © 2024 NEWS24-BENGALI.COM | All Rights Reserved.