এখনি পেট্রল-ডিজেল এর দাম কমানো সম্ভব নয়, কারণ স্পষ্ট করলেন সীতারমন!

by Chhanda Basak

ওয়েব ডেস্ক: এখনি কমছে না পেট্রোল ডিজেল এর দাম। পেট্রল-ডিজেল নিয়ে নিজেদের পূর্ববর্তী অবস্থানে অনড় রইলেন ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। শুধু তাই নয়, পেট্রলের দাম নিয়ে মনমোহন সরকারের ঘারেই দোষ চাপালেন সীতারমন। তিনি বলেন, আগের UPA সরকার পেট্রপণ্যের বন্ড ইস্যু করে কম দামে নাগরিকদের পেট্রল পৌঁছে দিয়েছিল। বর্তমান সরকার সেরকম কোনও রাস্তায় হাঁটবে না। কোনরকম কৌশল ব্যবহার করে পেট্রলের দাম কমানোর প্রশ্নটিতে কার্যত জল ঢেলে দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

এখনি পেট্রল-ডিজেল এর দাম কমানো সম্ভব নয়, কারণ স্পষ্ট করলেন সীতারমন!

গোটা দেশ জুড়ে পেট্রপণ্যের দাম আকাশছোঁয়া। দেশের চার মহানগরী-সহ ছোট বড় শহর মিলিয়ে পেট্রলের দাম শতক পার করেছে বহুদিন৷ পাল্লা দিয়ে শতকের খুব কাছে ডিজেলও। ব্যতিক্রম একমাত্র চেন্নাই। এদিকে আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দামেও বেশ বদল এসেছে। কার্যত বেশ অনেকটাই সস্তায় বিক্রি হচ্ছে তেল। তা সত্ত্বেও কেন পেট্রপণ্যের মূল্য এত বেশি? কেন্দ্রের তরফ থেকে রাজ্যগুলির দিকে দায় চাপানো হয়েছে। আবার রাজ্যের তরফ থেকে কেন্দ্রের এক্সাইজ ডিউটি ও অতিরিক্ত করপ্রদানের উপর। যাবতীয় এই চাপানউতোরের মাঝখানেই, আজ মনে করা হয়েছিল অর্থমন্ত্রী বোধহয় তেলের দাম কমানো নিয়ে কোনরকম ঘোষণার রাস্তায় হাঁটবেন। কিন্তু তেলের দাম যে কমবে না, সেই বিষয়ে সাফ জানিয়ে দেওয়া হল আজ।

নির্মলা সীতারমণ এ দিন দাবি করেছেন, মনমোহন সিং সরকার দেশের বিভিন্ন তেল সংস্থাকে তেলের বন্ড বিক্রি করেছিল। যে কারণে এখন সেই বন্ডের সুদ মেটাতে গিয়ে আর আমজনতাকে জ্বালানির দামে ছাড় দিতে পারছেন না তিনি। ওই বন্ড বাজারে ছাড়া না হলে আর সুদ মেটাতে না হলে তিনি অবশ্যই জ্বালানির দাম কমাতেন। তাঁর দাবি, মনমোহন সিং সরকার দেশের তেল উৎপাদক সংস্থাগুলিকে 1 লাখ চৌত্রিশ হাজার কোটি টাকার বন্ড বিক্রি করেছিল। যার সুদ মেটাতে হচ্ছে চড়া দামে। সীতারমনের মতে, পূর্ববর্তী সরকারের কাজের ফল হিসাবে বর্তমান সরকারকে শেষ পাঁচ বছরে 70 হাজার কোটি টাকার বেশি সুদ দিতে হয়েছে। সেই সুদ মেটাতে গিয়েই মোদী সরকার জ্বালানির দামে ছাড় দিতে পারছে না।

ভারতের উদ্বেগ বাড়িয়ে তালিবানদের ‘কার্যত’ পাশে দাঁড়ালো রাশিয়া ও চিন

এই দাবির পাল্টা উত্তর দিতে সময় নষ্ট করেনি কংগ্রেস। রীতিমতো পরিসংখ্যান দিয়ে দাবি করা হয়, মিথ্যা বলছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। সাহস থাকলে কংগ্রেসের যুক্তি যেন তিনি খণ্ডন করেন, সেই চ্যালেঞ্জ করা হয়েছে।

কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সুরযেওয়ালা টুইট করে লিখেছেন, “দয়া করে মিথ্যা বলা বন্ধ করুন এবং সাহস থাকলে আমার যুক্তি কেটে দেখান। গত ৭ বছরে বিজেপি পেট্রোল এবং ডিজেলের উপর কর ২৩.৮৭ এবং ২৮.৩৭ টাকা বাড়িয়েছে। মোদী সরকার অতিরিক্ত ১৭.২৯ লক্ষ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। মিথ্যে বলবেন না, ১.৩ লক্ষের তেল বন্ডের কোনও টাকা দেওয়া বাকি নেই।”

Pegasus ইস্যুতে তদন্ত করতে বিশেষজ্ঞ কমিটি কেন্দ্রের, সুপ্রিম কোর্টে জানাল সরকার

উল্লেখ্য, এক বেসরকারি সংবাদ মাধ্যম সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী, গত ৭ বছরে কেন্দ্রীয় সরকার সুদ বাবদ প্রায় ৭০ হাজার কোটি টাকা খরচ করেছে। তার বিপরীতে চলতি বছরের সাধারণ বাজেটে করোনা বাবদ ৩৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। এই পরিপ্রেক্ষিতেই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর কাছে জানতে চাওয়া হয়, কেন তিনি পেট্রোল-ডিজেলের দামে ছাড় দিচ্ছেন না। তখনই এই সাফাই দিতে শোনা যায় নির্মলা সীতারমণকে।

সীতারমনের এই ঘোষণার ফলাফল কি হয় সেটাই এখন দেখার। ইতিমধ্যেই পেট্রলের দাম কমিয়েছে তামিলনাড়ু সরকার। দামের আধিক্যের জন্য সরাসরি আঙুল তুলেছে কেন্দ্রের দিকে। নয়া ঘোষণা ঠিক কতটা প্রভাব ফেলে কেন্দ্র-রাজ্য সম্পর্কে তা অনুধাবন করা প্রয়োজন।

NEWS24-BENGALI.COM

NEWS24-BENGALI.COM brings to provide the latest quality Bengali News(বাংলা খবর, Bangla News) on Crime, Politics, Sports, Business, Health, Tech, and more on Digital Platform.

Edtior's Picks

Latest Articles

Copyright © 2024 NEWS24-BENGALI.COM | All Rights Reserved.